April 19, 2024, 1:59 am

শিরোনাম :
বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাহাদাত হোসেন রনি পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাহাদাত হোসেন রনি ২৬ শে মার্চ স্বাধীনতা দিবসে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সাহাদাত হোসেন রনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে আমাদের ধরে রাখতে হবে: সাহাদাত হোসেন রনি ৭ মার্চের ভাষণ সমগ্র বিশ্ববাসীর জন্য ঐতিহাসিক ভাষণ: সাহাদাত হোসেন রনি একুশের মূল চেতনা আমাদের তরুণ প্রজন্মকে ধারণ করতে হবে: সাহাদাত হোসেন রনি একুশ আমাদের চেতনা, একুশ আমাদের বিশ্বাস: সাহাদাত হোসেন রনি স্বাধীনতার পূর্ণতার দিন বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন: সাহাদাত হোসেন রনি কক্সবাজার ১ আসনে নিশ্চিত পরাজয় জেনে শেষ মূহুর্তে জাফর আলমের ভোট বর্জনের ঘোষণা বাঙালি জাতির আস্থার নাম হলো ছাত্রলীগ: সাহাদাত হোসেন রনি
ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে কলেজ ছাত্রীকে হুমকির অভিযোগ

ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে কলেজ ছাত্রীকে হুমকির অভিযোগ

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজারের চকরিয়ায় এক কলেজ ছাত্রীকে ফুসলিয়ে হোটেলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে হওয়া মামলার আসামি নাবিল শাদ রাকিন (২৬) নামের এক বখাটে যুবক ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকির অভিযোগ উঠছে।

গত ২ অক্টোবর কক্সবাজার সদর থানায় হওয়া জি আর ৬/৬৫১ নং মামলার আসামি চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী এলাকার এস এম মঞ্জুর আলমের পুত্র নাবিল শাদ রাকিন ধর্ষণ মামলার বাদী কলেজ ছাত্রী(২১)কে ধর্ষণ মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বারবার হুমকি ধমকি দিচ্ছেন বলে সাংবাদিকের কাছে জানিয়েছেন মামলার বাদী কলেজ ছাত্রী।

ধর্ষণের শিকার কলেজ ছাত্রী মঙ্গলবার সন্ধ্যায় অভিযোগের সুরে সাংবাদিকদের বলেন, মামলা হওয়ার দুই মাস অতিবাহিত হলেও অদ্যবধি আমার মামলার একমাত্র আসামি নাবিল শাদ রাকিনকে গ্রেফতার করেনি পুলিশ। আসামি প্রকাশ্যে এলাকায় ঘুরে বেড়ালেও কোন এক অদৃশ্য কারণে তাকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। আসামিকে গ্রেফতারের জন্য মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কক্সবাজার সদর থানার উপ পরিদর্শক শেখ ইফতেখার মাহমুদের কাছে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কোন ফল পাননি বলে জানান মামলার বাদী।

পক্ষান্তরে আসামির বাবা চকরিয়া মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও উপজেলা বিএনপি’র নেতা এসএম মঞ্জুর আলম বিভিন্ন লোকজন দিয়ে মামলা তুলে নিতে বাদীকে চাপ সৃষ্টি করছে বলেও জানান।

আসামী স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় ভুক্তভোগী কলেজ ছাত্রীর পরিবার নিরাপত্তহীনতায় রয়েছেন বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে এস এম মঞ্জুর আলম জানান, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। তাই আমি এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে চাই না। মামলা তুলে নেওয়ার হুমকির বিষয়টি ভিত্তিহীন বলে জানান।

উল্লেখ্য যে গত ২৬ সেপ্টেম্বর খুটাখালীর এক কলেজ ছাত্রী তার বান্ধবীদের নিয়ে কক্সবাজারে বেড়াতে যাওয়ার পর একই এলাকার বখাটে যুবক রাকিন ওই ছাত্রীকে ফুসলিয়ে কলাতলি এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলে তুলে একটি কক্ষে নিয়ে যায়। পরে তাকে একটি জুস খাইয়ে অজ্ঞান করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এঘটনায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

কক্সবাজার সদর থানার ওসি শেখ মুনীর উল গিয়াস বলেন, আসামিকে ধরতে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে এবং এখনো তা অব্যাহত রয়েছে। ##

নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2020 districtnews24.Com
Design & Developed BY districtnews24.Com