September 22, 2021, 2:46 pm

শিরোনাম :
দৈনিক-করতোয়া পত্রিকার নওগাঁ জেলা প্রতিনিধির স্ত্রীর ইন্তেকাল পেকুয়ায় ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নওগাঁয় টিটিসি চত্ত্বরে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী পালিত মৃত্যুর কাছে হার মেনে, না ফেরার দেশে চলে গেলেন ডাক্তার ওয়াহিদুর। নওগাঁর রাণীনগরে চিরকুট লিখে যুবকের আত্মহত্যা টইটংয়ে জাহেদ ফের চেয়ারম্যান নির্বাচিত নওগাঁয় পৌর মেয়রসহ বিএনপির ৩ নেতার মুক্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন সাংবাদিক নেতার ব্যাংক হিসাব তলব করায় ডিইউজের উদ্বেগ রবিবার সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সাপাহারে আইহাই ইউনিয়ন আ’লীগের প্রয়াত নেতা-কর্মীদের স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত চোরের পিতা কর্তৃক কাগইল বণিক সমিতির সদস্যদের উপর মিথ্যা মামলা করার প্রতিবাদে মানব বন্ধন
সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের পরিবারের ১৮-ঊর্ধ্বরা করোনার টিকা পাবে

সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের পরিবারের ১৮-ঊর্ধ্বরা করোনার টিকা পাবে

ডিএন২৪ ডেস্ক
করোনাভাইরাস মহামারী ঠেকাতে সম্মুখসারিতে কাজ করা পেশাজীবীদের পরিবারের ১৮ বছরের বেশি বয়সী সদস্যরা করোনাভাইরাসের টিকা পাবেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে ইতোমধ্যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সুরক্ষা অ্যাপে গিয়ে তারা যেন নিবন্ধন করতে পারে, সেই ব্যবস্থাও নেয়া হচ্ছে।

শনিবার বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ অ্যাসোসিয়েশন-বিপিএমসিএ আয়োজিত ভার্চুয়াল আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনাভাইরাস মহামারীতে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে দায়িত্বপালনকারী চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী, সেনাবাহিনী, পুলিশ ও শিক্ষক এদেরকে আগে টিকা দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়া তাদের পরিবারের ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে যেসব সদস্য আছে, তাদেরকেও টিকাদান কার্যক্রমের আওতায় আনা হবে।

‘এ ব্যাপারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছি আমরা। এখন থেকে এটা কার্যকর। সুরক্ষা অ্যাপে এটা দিয়ে দিচ্ছি সেই অনুযায়ী কাজ হবে,’ বলেন তিনি।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, যারা সুরক্ষা অ্যাপ ব্যবহার করতে পারে না তাদেরও টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। তাদেরকে জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে টিকা দেয়ার চেষ্টা করব। পরে তাদের নিবন্ধিত করে নেয়া হবে।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের টিকার জন্য নিবন্ধনের ন্যূনতম বয়সসীমা কমিয়ে ১৮ বছর করা হচ্ছে বলে শুক্রবার জানিয়েছিলেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা: এবিএম খুরশীদ আলমও।

বাংলাদেশে গত ২৬ জানুয়ারি টিকার জন্য নিবন্ধন শুরু হয়। শুরুতে ৫৫ বছর বা তার বেশি বয়সীদের টিকার জন্য নিবন্ধন করার সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। পরে তা তিন ধাপে কমিয়ে ৩০ বছরে নামিয়ে আনা হয়।

অর্থাৎ, যাদের বয়স ৩০ বছর বা তার বেশি, কেবল তারাই এখন সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মের ওয়েবসাইটে গিয়ে টিকার জন্য নিবন্ধন করতে পারছেন।

মহামারী মোকাবিলায় সম্মুখসারির কর্মী, বেশ কিছু পেশাজীবী শ্রেণী, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী, প্রবাসী কর্মী এবং প্রাধিকার তালিকায় থাকা ব্যক্তিরা নির্ধারিত বয়সসীমার বাইরেও নিবন্ধনের সুযোগ পাচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2020 districtnews24.Com
Design & Developed BY districtnews24.Com