March 31, 2020, 4:00 pm

শিরোনাম :
করোনা ভাইরাস সংকটে মানবিক উদ্যোগ নিয়েছে কক্সবাজার জেলা পুলিশ : এসপি মাসুদ কাজিপুরে নিম্ন আয়ের মানুষদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ চকরিয়ায় গৃহবন্দী কর্মহীন মানুষের ঘরে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন ইউএনও শিবলী নোমান সাধারণ ছুটি ১১ এপ্রিল পর্যন্ত সিরাজগঞ্জে গৃহবধুকে গণধর্ষনে ব্যর্থ হয়ে মাথা ফাটালেন ৫ জনের করোনার সঙ্গে যদি মশা যোগ হয় বা ডেঙ্গু আসে, সেটা আমাদের জন্য আরও মারাত্মক হবে- প্রধানমন্ত্রী সিরাজগঞ্জে চিকিৎসক ও নার্সদের মাঝে পিপিই ও হ্যান্ড গ্লোব বিতরণ যারা ত্রান সামগ্রী নিতে এসেছে এরা কেউ ভিক্ষুক নয়.. মোজাম্মেল হক কালিয়াকৈরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কাশিমপুরে স্ত্রী সন্তান হত্যা করে পরিশেষে স্বামীর আত্মহত্যা
বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর আদর্শ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই সমগ্র বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব

বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর আদর্শ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই সমগ্র বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব

চরমনাই, আলিয়া, হিন্দু তথা দল মত নির্বিশেষে সবার অংশগ্রহণে আহমদীয়া মুসলিম জামা’তের বৃহত্তর বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনার আঞ্চলিক সালানা জলসা শান্তিপূর্ণভাবে সুসম্পন্ন

পবিত্র কোরআন ও মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর অনুপম শিক্ষা প্রচারের আহ্বানের মধ্য দিয়ে দু’দিন ব্যাপী বৃহত্তর বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনার আঞ্চলিক সালানা জলসা খাকদানে শান্তিপূর্ণভাবে সুসম্পন্নহয়। জলসার অুনষ্ঠান শুরু হয় ৬ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৩টায় আর সমাপ্ত হয় ৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায়। জলসায় উপস্থিত ছিলেন আহমদীয়া মুসলিম জামাত বাংলাদেশের জাতীয় আমীর আলহাজ্জ মাওলানা আব্দুল আউয়াল খান চৌধুরী। জলসায় দোয়া কবুলিয়ত আল্লাহতায়ালার অস্তিত্বের প্রমাণ, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ হজরত মুহাম্মদ (সা.), হজরত ইমাম মাহদী (আ.)-এর রসূল প্রেম, ঐশী খেলাফত মুসলিম ঐক্যের একমাত্র পথ, , খাতামান নাবীঈনের চিরস্থায়ী কল্যাণ, বিশ্বব্যাপী ইসলাম প্রচারে আহমদীয়া মুসলিম জামাত, বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় আহমদীয়া খেলাফতের ভূমিকার ওপর পর্যায়ক্রমে বক্তব্য রাখেন মাওলানা শেখ মোস্তাফিজুর রহমান, মাওলানা শাহ মুহাম্মদ নুরুল আমীন, মাওলানা মুহাম্মদ রবিউল ইসলাম প্রমুখগণ।জলসায় বক্তাগণ বলেন- বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর আদর্শ প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই সমগ্র বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব।

সর্বশ্রেষ্ঠ ও খাতামান্নাবেঈন হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে আহমদীয়া মুসলিম জামাতের পবিত্র প্রতিষ্ঠাতা কোন দৃষ্টিতে দেখতেন তাও বক্তাগণ স্পষ্ট করেন আর খাতামান্নাবেঈন শব্দের যত অর্থ আছে সব অর্থকেই আহমদীয়া মুসলিম জামাত যে বিশ্বাস করেন সে বিষয়ে তুলে ধরা হয়। জলসায় মহানবী (সা.) সম্পর্কে আহমদীয়া মুসলিম জামাতের প্রতিষ্ঠাতার এই উদ্ধৃতিও তুলে ধরা হয়- সেই সর্বোচ্চ স্তরের নূর যা মানবকে দেয়া হয়েছে অর্থাৎ পূর্ণ মানবকে, যা ফিরিশতাদের মাঝে ছিল না, নক্ষত্ররাজিতে ছিল না, চন্দ্রে ছিল না, সূর্যে ছিলনা, যা পৃথিবীর সমুদ্র এবং নদী সমুহেও ছিল না, তা মুক্তো, মানিক্য এবং পান্না ও মোতিতেও ছিল না, এক কথায় স্বর্গ ও মর্তের কোন বস্তুতেই তা ছিল না, তা শুধু মানবের মাঝে ছিল অর্থাৎ পূর্ণ মানবের মাঝে, যার পূর্ণ ও সর্বোত্তম ব্যক্তি আমাদের নেতা, নবীদের নেতা, অমর জীবনপ্রাপ্তগণের মনিব মুহাম্মদ মুস্তফা (সা.)। অতএব সেই জ্যোতি সেই মানবকেই দেয়া হয়েছে আর মর্যাদা অনুসারে তার রঙে রঙীন সবাইকে দেয়া হয়েছে অর্থাৎ তাদেরকে যারা কিছুটা তাঁর সেই রঙে রঙীন।

জলসায় উক্ত এলাকার চরমনাই, আলিয়া, হিন্দু তথা দল মত নির্বিশেষে সবাই স্বতস্ফূর্র্তভাবে অংশ গ্রহণ করেন।শেষে মুসলিম বিশ্বের শান্তি কামনার মধ্য দিয়ে দু’দিন ব্যাপী জলসার সমাপ্তি ঘটে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2019 districtnews24.Com
Design & Developed BY districtnews24.Com